Home দেশ বাড়ির অমতে কেন চাকরি করবে মেয়ে, শাস্তিস্বরূপ মেয়ের দুচোখ চাকু দিয়ে...

বাড়ির অমতে কেন চাকরি করবে মেয়ে, শাস্তিস্বরূপ মেয়ের দুচোখ চাকু দিয়ে খুবলে নিল বাবা

পৃথিবীতে এখনও মেয়েদের ইচ্ছা দমিয়ে রাখা হয়, কথা শুনের চলার দায়বদ্ধ মেয়েরা, অনেকেরই ধারণা এমন, আধুনিক যুগেও মেয়েদের স্বপ্নের দাম দেয়না অনেকেই, এমনকি তার পরিবারও অনেক সময় তার স্বপ্নের শত্রু হয়ে ওঠে। এবার এমন ঘটনার সাক্ষী থাকল কাবুল। যেখানে বাড়ির অমতে কাজ করায় খুবলে নেওয়া হতে মেয়ের চোখ। যাতে দুচোখ ভরা স্বপ্নে আর ডানা মেলে উড়তে না পারে মেয়ে।



পুরুষতন্ত্রের দম্ভ, অহং, অন্ধকারকে আলো বাড়িয়ে তোলে, পুরুষতন্ত্র সমাজের মেয়েদের উপর সবসময় শক্তি প্রর্দশন করেছে।

যদিও বিশ্বের সর্বত্র এমন নয়। অনেক দেশ, অনেক জায়গায় দেখা যায় যেখানে মেয়েদের ধারণা, চিন্তাভাবনাকে সম্মান করা হয়।



তবে আফগানিস্থানে মেয়েদের অবস্থা আজও শোচনীয়, সেখানে শিক্ষা অর্জন করাটাই মেয়েদের কাছে অনেক বড় ব্যাপার।

আফগানিস্থানের কাবুলে ৩৩ বছরের খতেরা চাকরি পেয়েছিল পুলিশে, ছোট থেকেই স্বপ্ন দেখেছিল নিজের পায়ে দাঁড়ানোর। কিন্তু তাঁর পরিবার তার পাশে দাড়ায়নি, তার বাবা কখনোই সমর্থন করেননি মেয়েকে। তবে পরিবারের কেউ তাকে সাপোর্ট না করলেও পরিবারের অমতেই চাকরি করতে গিয়েছিলেন ।




সেইজন্য তাকে বাড়িতে অনেক অত্যাচারের সম্মুখীনও হতে হয়।শেষ পর্যন্ত অতিষ্ঠ হয়ে চাকরি ইস্তফা দিয়ে দেয় সে। ইস্তফাপত্র জমা দিয়ে বাড়ি ফেরার পথে তাঁর ওপর হামলা চালায় দুস্কৃতিরা। চাকু দিয়ে খুবলে দেয় খতেরার চোখ। রাস্তাতেই অচৈতন্য হয়ে পড়ে। জ্ঞান আসলে দেখে সে হাসপাতালে। বুঝতে পারে হারিয়েছে দৃষ্টি শক্তি।

ঘটনাটির তদন্ত শুরু হয়েছে। এখনো সামনে আসেনি অপরাধীর নাম।তবে অনুমান খতেরার বাবাই লোক দিয়ে একাজ করিয়েছেন।




খতেরা জানায় যদি সে , একটা বছর পুলিশের কাজ করত , তাহলে এই চোখ যাওয়ার কষ্ট তার থাকতো না। সে জানায় তার বাবা অনেকবার তাকে প্রাণে মারার হুমকি দিয়েছিলেন, তাই একাজ তার বাবার পক্ষে সম্ভব। স্বপ্ন দেখার দোষে দৃষ্টিশক্তি হারাতে হল মেয়েকে।

- Advertisment -

জনপ্রিয়

সরস্বতী নাট্যোৎসবের দ্বিতীয় পর্যায় অনুষ্ঠিত হতে চলেছে উত্তর চব্বিশ পরগনার অশোকনগরে

করোনা প্রকোপ খানিক শান্ত হতে না হতেই এই শীতের মরসুমে নাট্যপিপাসু দর্শকদের কাছে সবচেয়ে আনন্দের বিষয় কলকাতা সহ পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন প্রান্তে অনুষ্ঠিত হওয়া নাট্যোৎসবে...

“পাই” এর উৎসবে মাতলো কলকাতা। ২০ থেকে ২৬ শে জানুয়ারি পর্যন্ত চললো সেলিব্রেশন

কলকাতায় গল্ফগ্রীনে পুরো সপ্তাহ ধরে চললো "পাইয়ের উৎসব"। "দ্য পাই হাউসের" পক্ষ থেকে আন্তর্জাতিক পাই ডে উপলক্ষে ২০ থেকে ২৬ শে জানুয়ারি সেলিব্রেট করা...

কলকাতা প্রেক্ষাপট এর নাট্য – পার্বণ

ভারতীয় সংকৃতির পীঠস্থান আমাদের এই বাংলা । নাট্যচর্চা বাংলার তথা ভারতীয় সংস্কৃতির এক অভূতপূর্ব ধারাকে বহন করে নিয়ে চলেছে প্রাচীনকাল থেকেই । বরাবরই বিভিন্ন...

সুযোগ পেলে আমিও স্বাস্থ্য সাথীর কার্ড করাবো” বললেন দিলীপ ঘোষ

মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নে এবার সামিল রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। স্বাস্থ্য সাথীর কার্ড করেছেন দিলীপ ঘোষ ও তার পরিবার এমনই দাবি করলেন বীরভূম...