Home বিনোদন 'ওয়েস্ট বেঙ্গল আনলক গিটার কোলাবোরেশন' বাংলার দশজন প্রখ্যাত গিটারিস্টের প্রয়াসে

‘ওয়েস্ট বেঙ্গল আনলক গিটার কোলাবোরেশন’ বাংলার দশজন প্রখ্যাত গিটারিস্টের প্রয়াসে

বাংলার দশজন প্রখ্যাত গিটারিস্টের প্রয়াসে ‘ওয়েস্ট বেঙ্গল আনলক গিটার কোলাবোরেশন’

করোনা মহামারীর কারণে বহুদিন হাতে কাজ নেই শিল্পজগতের মানুষদের৷ তারা লকডাউনে ভার্চুয়াল আড্ডার মাধ্যমে দর্শকদের গান শুনিয়ে কিছুটা সময় অতিক্রম করতে পেরেছিলেন। কিন্তু লকডাউন কিছুটা উঠে যাওয়ার পর সকলে আস্তে আস্তে কাজে ফিরে আসছেন। অনেক দিন ধরেই শিল্পীরা আবার ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছেন। কিন্তু তারা ঘুরে দাঁড়ানোর কোনো উপায় খুঁজে পাচ্ছিলেন না৷ মানুষ যেখানে ভালো নেই সেখানে শিল্পসমাজ কীভাবে ভালো থাকবে? করোনার আতঙ্কের মাঝেই সাইক্লোন আমফানে তছনছ হয়ে যায় বাংলার দক্ষিণ ২৪ পরগণা, উত্তর ২৪ পরগণা, পূর্ব মেদিনীপুর ও কলকাতার পাঁচ জেলা। আমফানের আঘাতে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে মানবজীবন। বহু মানুষ ঘরবাড়ি হারিয়েছে বহু মানুষ নিজের সম্বলটুকুও হারিয়ে ফেলেছেন। এই পরিস্থিতিতে সকল শিল্পীরা যতটা পারছেন কোমর বেঁধে আমফান বিপর্যস্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছেন।
পৌঁছে গেছে বিভিন্ন জায়গায়, দাঁড়িয়েছেন অসহায় মানুষদের পাশে। প্রায় চারটে মাস আমরা পার হয়ে গেছে। তবুও করোনার আতঙ্ক কিছুতেই কাটছে না গোটা দেশে থেকে। কেবল ব্যতিক্রম পশ্চিমবঙ্গ। এই রাজ্যে পরিস্থিতি অনেকটাই স্বাভাবিক হয়ে উঠছে। সকল মানুষ নিত্য নতুন গান শোনার জন্য অধীর আগ্রহে বসে আছেন। গত চার মাসে বড়ো কোনো গান মুক্তি পায়নি৷ ফলে মানুষ চাইছেন শিল্পীরা নতুন কাজ নিয়ে ময়দানে হাজির হোক।

শেষ চার মাসে ইনডিপেনডেন্ট সঙ্গীত শিল্পী ও রক-ব্যান্ড আর্টিস্টদের হাতে কোনো শো নেই৷ নতুন গানের রিলিজও নেই৷ লকডাউনে নিজেদের মোটামুটি এনগেজ রাখার চেষ্টা করেছেন সকলেই। এমনিতেই ইনডিপেনডেন্ট আর্টিস্টদের বড়ো মিউজিক প্রোডাকশন ছাড়াই নিজেদের পকেট থেকে টাকা খরচ করে গান বানাতে হয়। কেবল গান বানানোই নয়, গান বানানোর পাশাপাশি মার্কেটিং এর দিকটাও তাদেরই সামলাতে হয়। আগে যে পরিমাণে টিভি বা রেডিও চ্যানেলে বাংলা ইনডিপেনডেন্ট মিউজিক চলতো, আজকে টিভি খুললে দেখা যায় ইনডিপেনডেন্ট মিউজিক অতটা চলেনা। রেডিও তে হয়তো ইনডিপেনডেন্ট মিউজিক চলে তবুও সেটা দিনে একটি বা দুটো৷ তার থেকেও বড়ো ব্যাপার হলো ইনডিপেনডেন্টUntitled design (1)-min শিল্পীরা মিডিয়া সাপোর্টও খুব একটা পায়না। আজকে সোশ্যাল মিডিয়ার কল্যাণে নতুন করে স্বপ্ন দেখার সুযোগ পাচ্ছেন ইনডিপেনডেন্ট শিল্পীরা। ফেসবুকে বাংলা ব্যান্ড, বাংলা রক, বাংলা ইনডিপেনডেন্ট মিউজিক প্রমোট করার জন্য বিভিন্ন পেজ ও গ্রুপ তৈরি হয়েছে। অনেক মানুষই একটু একটু করে ইনডিপেনডেন্ট মিউজিক শুনছেন। মানুষের মধ্যে বাড়ছে উন্মাদনা।

মানুষের চাহিদা ও বাংলা গানের প্রতি ভালোবাসা থেকে ইনডিপেনডেন্ট শিল্পীরা দাঁতে দাঁত কামড়ে নিষ্ঠার সাথে গান বানাচ্ছেন। তারা কখনোই থেমে থাকার পাত্র নন। নিজেদের সমস্ত আশা-আকাঙ্ক্ষা বিসর্জন দিয়েও তারা নতুন গানের ধারাকে বাঁচিয়ে রেখেছেন। মানুষের কাছে নিত্য নতুন গান পৌঁছে দিতে এবার অভিনব উদ্যোগে সামিল বাংলার নামী গিটারিস্টরা। গোটা রাজ্য থেকে দশজন স্বনামধন্য গিটারিস্ট একটি গিটার কোলাবোরেশন ভিডিও নির্মাণ করতে চলেছেন৷ যে প্রজেক্টে রয়েছেন হিমাদ্রি মজুমদার, বৈদূর্য চৌধুরী, মিমো মজুমদার, সুমিত ব্যানার্জী, মহেশ শুক্লা, অনুরাUntitled design (1)-minগ খাট্টি, অনগেইন মার্টিন লেপচা, দেবায়ন গুপ্ত, সাগ্নিক গুহ এবং স্নেহাশিষ বোসের মতো নামী গিটারিস্টরা। এই প্রজেক্টের নাম “ওয়েস্ট বেঙ্গল আনলক গিটার কোলাবোরেশন ২০২০”। এই প্রজেক্ট নিয়ে আশাবাদী প্রজেক্টের সাথে যুক্ত সকল কলাকুশলীরা। আপাতত মুক্তির পথে প্রহর গুনছে এই প্রজেক্ট।

- Advertisment -

জনপ্রিয়

সরস্বতী নাট্যোৎসবের দ্বিতীয় পর্যায় অনুষ্ঠিত হতে চলেছে উত্তর চব্বিশ পরগনার অশোকনগরে

করোনা প্রকোপ খানিক শান্ত হতে না হতেই এই শীতের মরসুমে নাট্যপিপাসু দর্শকদের কাছে সবচেয়ে আনন্দের বিষয় কলকাতা সহ পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন প্রান্তে অনুষ্ঠিত হওয়া নাট্যোৎসবে...

“পাই” এর উৎসবে মাতলো কলকাতা। ২০ থেকে ২৬ শে জানুয়ারি পর্যন্ত চললো সেলিব্রেশন

কলকাতায় গল্ফগ্রীনে পুরো সপ্তাহ ধরে চললো "পাইয়ের উৎসব"। "দ্য পাই হাউসের" পক্ষ থেকে আন্তর্জাতিক পাই ডে উপলক্ষে ২০ থেকে ২৬ শে জানুয়ারি সেলিব্রেট করা...

কলকাতা প্রেক্ষাপট এর নাট্য – পার্বণ

ভারতীয় সংকৃতির পীঠস্থান আমাদের এই বাংলা । নাট্যচর্চা বাংলার তথা ভারতীয় সংস্কৃতির এক অভূতপূর্ব ধারাকে বহন করে নিয়ে চলেছে প্রাচীনকাল থেকেই । বরাবরই বিভিন্ন...

সুযোগ পেলে আমিও স্বাস্থ্য সাথীর কার্ড করাবো” বললেন দিলীপ ঘোষ

মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নে এবার সামিল রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। স্বাস্থ্য সাথীর কার্ড করেছেন দিলীপ ঘোষ ও তার পরিবার এমনই দাবি করলেন বীরভূম...