Home গোপনীয় যৌন জীবনে উত্তেজনা আনতে পারে জিরের গুন...

যৌন জীবনে উত্তেজনা আনতে পারে জিরের গুন…

বর্তমানে ব‍্যস্ত জীবনে অনিয়মিত বা অনিয়ন্ত্রিত খাওয়াদাওয়া ও মানসিক চাপ মানুষের যৌনজীবনকে ক্ষতিগ্রস্ত করে তুলছে। যৌন জীবনে শিথিলতা বাড়ছে। বয়স একটু বেশী হলেই অধিকাংশ মানুষের যৌনজীবনের প্রতি অনিচ্ছা চলে আসে। এক্ষেত্রে যৌন জীবন স্বাভাবিক করতে অনেকেই ভায়াগ্রার সাহায্য নেন। এমন কিছু খাদ‍্য উপাদান আছে যা আমাদের যৌন ক্ষমতা বাড়াতে দারুন কার্যকরী। চলুন সেগুলো দেখে নিই একনজরে

১. রসুন – যৌনক্ষমতা বাড়াতে রসুনের ভূমিকা অপরিসীম। প্রতিদিন পাতে এক কোয়া করে রসুন যদি খেতে পারেন তবে হারানো উদ্দীপনা ফিরে পাবেন আপনি।



২. হিং – টানা ৪০ দিনে প্রতিদিন যদি.০৬ গ্রাম করে হিং খেতে পারেন তবে আপনি আবার সুস্থ যৌনজীবন ফিরে পাবেন। রান্নায়ও হিং দিতে পারেন।প্রতিদিন সকালে এক গ্লাসে এক চামচ হিং মিশিয়ে খেলে এর উপকার পাবেন।

৩. সজনে ডাটা – পুরুষের লিঙ্গ উত্থানে বা যৌন উদ্দীপনা বাড়াতে সজনে ডাটা বিশেষ উপকারী। প্রতিদিনেই খাবারের সঙ্গে সজনে ডাটা রাখতে পারেন বা এক গ্লাস দুধে সজনে ফুল, নুন ও গোলমরিচ মিশিয়ে খেলেও উপকার পাবেন।



৪. জিরা – জিরার মধ‍্যে থাকা পটাশিয়াম ও জিঙ্ক যৌনাঙ্গে রক্ত সঞ্চালন বাড়ায়। প্রতিদিন এক কাপ গরম চায়ে জিরা মিশিয়ে খেলে উপকার পাবেন।



৫. আদা – আদায় রয়েছে এমন ঔষধি গুন যা বিভিন্ন রোগ ব‍্যধির মোকাবিলায় সাহায্য করে। সুস্থ যৌনজীবন ধরে রাখতে আদার ভূমিকা অপরিসীম। আদার মধ‍্যে থাকা ভোলাটাইল ওয়েল স্নায়ুর উত্তেজনা বাড়ায় ও রক্ত সঞ্চালনের মাত্রা নিয়ন্ত্রন করে।

- Advertisment -

জনপ্রিয়

সরস্বতী নাট্যোৎসবের দ্বিতীয় পর্যায় অনুষ্ঠিত হতে চলেছে উত্তর চব্বিশ পরগনার অশোকনগরে

করোনা প্রকোপ খানিক শান্ত হতে না হতেই এই শীতের মরসুমে নাট্যপিপাসু দর্শকদের কাছে সবচেয়ে আনন্দের বিষয় কলকাতা সহ পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন প্রান্তে অনুষ্ঠিত হওয়া নাট্যোৎসবে...

“পাই” এর উৎসবে মাতলো কলকাতা। ২০ থেকে ২৬ শে জানুয়ারি পর্যন্ত চললো সেলিব্রেশন

কলকাতায় গল্ফগ্রীনে পুরো সপ্তাহ ধরে চললো "পাইয়ের উৎসব"। "দ্য পাই হাউসের" পক্ষ থেকে আন্তর্জাতিক পাই ডে উপলক্ষে ২০ থেকে ২৬ শে জানুয়ারি সেলিব্রেট করা...

কলকাতা প্রেক্ষাপট এর নাট্য – পার্বণ

ভারতীয় সংকৃতির পীঠস্থান আমাদের এই বাংলা । নাট্যচর্চা বাংলার তথা ভারতীয় সংস্কৃতির এক অভূতপূর্ব ধারাকে বহন করে নিয়ে চলেছে প্রাচীনকাল থেকেই । বরাবরই বিভিন্ন...

সুযোগ পেলে আমিও স্বাস্থ্য সাথীর কার্ড করাবো” বললেন দিলীপ ঘোষ

মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নে এবার সামিল রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। স্বাস্থ্য সাথীর কার্ড করেছেন দিলীপ ঘোষ ও তার পরিবার এমনই দাবি করলেন বীরভূম...