Home দেশ অনলাইন ক্লাসের মাঝে ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার ছাত্রের...

অনলাইন ক্লাসের মাঝে ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার ছাত্রের…

অনলাইন ক্লাসের মাঝে ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার ছাত্রের

অনলাইন ক্লাস করার জন‍্য ছেলেকে ফোন দিয়ে বাইরে বেরিয়েছিলেন বাবা মা। আধঘন্টার মধ‍্যে বাড়িতে এসে বাবা দেখেন মোবাইল বন্ধ অবস্থায় খাটের উপর পড়ে আছে। পাশের ঘরে ভিতর দিয়ে বন্ধ। দরজা ভাঙতেই দেখেন সিলিং থেকে ঝুলছে ছাত্রের দেহ।

মঙ্গলবার এমন ঘটনা ঘটেছে বাশদ্রোনী এলাকায়। বছর তেরোর ওই কিশোরকে বাঘাযতীন স্টেট হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে মৃত ঘোষনা করে চিকিৎসক। পুলিশ সুত্রে খবর, ছেলেটির হাতে ব্লেডের আচড়ের দাগ মিলেছে। অস্বাভাবিক মৃত‍্যুর মামলা জারি করে তদন্ত শুরু করেছে রিজেন্ট পার্ক থানা।

প্রাথমিক তদন্তে অনুমান, ক্লাস চলাকালীন আত্মঘাতী হয়েছে ওই ছাত্র। তবে মৃত‍্যুর কারন কী তা বুধবার রাত অবধি ষ্পষ্ট‍্য নয়। বাশদ্রোনীর একটি স্কুলে অষ্টম শ্রেনীতে পড়ত ওই ছাত্র। শিক্ষকদের পাশাপাশি ছাত্রদর সঙ্গেও কথা বলেছে পুলিশ।

মৃত কিশোরের মা রাজ‍্যের স্বাস্থ‍্যদপ্তরের চুক্তিভিত্তিক কর্মী। তার বাবা চেন্নাইয়ের একটি নির্মান সংস্থায় কর্মরত। কয়েকদিন আগেই তিনি বাড়ি ফিরেছেন।এদিন সকাল ৯ টা ৪০ থেকে অনলাইন ক্লাস ছিল ছেলের। ফোন ছেলের কাছে রেখেই ১০ নাগাদ র্তর বাবা মাকে কর্মস্থলে পৌছে দিতে রওনা হন। ফিরে এসে ছেলেকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখেন বাবা।

বুধবার পৌছে ওই ছাত্রের মায়ের সঙ্গে কথা বলে পুলিশ। শোকস্তব্ধ মা জানান, ” বাড়ি থেকে এগারোটা নাগাদ ফোন করে ডেকে পাঠানো হয়। ফিরে দেখি ছেলের দেহ মাটিতে শোয়ানো আর অন‍্য গরে খাটের উপর মোবাইল পড়ে আছে।”

তদন্তের শুরুতে ফোনটি বাজেয়াপ্ত করে পুলিশ। সুত্রে খবর, ৯ টা ৪০ থেকে ১০ টা ২০ অবধি ক্লাসে উপস্থিত ছিল সে। কিন্তু তখন যে শিক্ষক ক্লাস নিচ্ছিলেন তিনি জানান এগারোটা অবধি ক্লাস চলেছে তার। তবে ক্লাস চলাকালীন অস্বাভাবিক কিচু দেখেননি তিনি। এমনকি ওই ছেলেটি কখন ক্লাস ছেড়ে বেরিয়ে যায় সেটাও নজরে আসেনি তার। এমনকি ফোনে আসা বেশ কিছু মেসেজ ডিলিট করেছিল সে।

ছাত্রের মায়ের কথায়, ” চুপচাপ স্বভাবের হলেও ছেলে যে এরকম কান্ড ঘটিয়ে বসবে ভাবতে পারিনি। গত রবিবার রাতে এক ছাত্রীর মা আমার ছেলেকে ফোন করে বকাবকি করছিলেন। তিনি নাকি তার মেয়ের সঙ্গে আমার ছেলের বন্ধুত্ব চান না। কিন্তু আমার ছেলেও ওর সঙ্গে মিশতে চায়নি।” এরপর ছাত্রীর ভাকে এ বিষয়ে জিজ্ঞেস করা হলে জানান, যা বলার পুলিশকেই বলব।

- Advertisment -

জনপ্রিয়

মুক্তি পেলো DEZINIAX STUDIOS -এর প্রযোজনায় স্বল্প দৈর্ঘ্যের ছবি “হুলো & মেনি”…

বাঙালীর শ্রেষ্ঠ উৎসব দূর্গা পুজো. আর দূর্গা পুজোয় প্রেম হবে না তা কি হয়. এবার পুজোয় তবে "হুলো আর মেনির প্রেম হয়ে যাক? অবাক...

পুজোর মরশুমে ‘মনের মানুষ’ দেবতনু রাজ করতে চলেছে সকলের “হৃদ মাঝারে”!

বর্তমানে পরিস্তিতি উদ্বেগ জনক হলেও বাঙালীরা ৩৬৫ দিন অপেক্ষা করে থাকে এই ৪টি দিনের জন্য। উমা ঘরে আসার সাথে সাথে চারিদিক খুশির আমেজে ভরে...

দাম্পত্য জীবনের প্রথম দূর্গা পুজো! কেমন কাটাচ্ছে অভিনেতা আরুষ এবং পায়েল?

এবিও পত্রিকার তরফ থেকে প্রথমেই আরুষ এবং পায়েল কে জানাই শুভ শারদীয়ার প্রীতি ও শুভেচ্ছা। গত বছর ২৭ নভেম্বর ২০২০ তে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছে...

Klikk এর পক্ষ থেকে মুক্তি পেলো আরো একটি স্বল্প দৈর্ঘ্যের ছবি “আগমনী”…

বাঙালীর শ্রেষ্ঠ উৎসব দূর্গা পূজা। ৩৬৫ দিন বাঙালীরা অপেক্ষা করে থাকে এই ৪টি দিনের জন্য। উমা ফেরে তার মায়ের ঘরে। চারিদিক মেতে ওঠে উৎসবের...