Home জেলার খবর দেহে জড়ানো বিদ্যুতের তার, চুঁচুড়ায় বাড়ি থেকে উদ্ধার দম্পতির দেহ

দেহে জড়ানো বিদ্যুতের তার, চুঁচুড়ায় বাড়ি থেকে উদ্ধার দম্পতির দেহ

বিদ‍্যুতের তার জড়িয়ে চুচুড়ায় মৃত‍্যু বৃদ্ধ দম্পতির

হুগলী জেলার তালডাঙায় শরীরে বিদ‍্যুতপৃষ্ট হয়ে মারা গেলেন বৃদ্ধ দম্পতি। মৃত দম্পতির নাম গঙ্গাধর দাস(৮০) ও জ‍্যোতি দাস(৭০)।

স্থানীয় সুত্রে খবর, গত ৫০ বছর ধরে একটি ছোট বাড়িতে বাস করতেন ওই দম্পতি। তাঁদের দুই মেয়ে, দুজনেরই বিয়ে হয়ে গেছে। মৃত গঙ্গাধর ইলেকট্রিকের কাজ করতেন পরে অবশ‍্য বেসরকারী প্রতিষ্ঠান ও তিনি একটি কারখানায় গার্ডের কাজ করতেন। কিন্তু এখন বয়স বাড়ার সাথে সাথে কাজ কমতে আসে। সেই কারণে পাড়ায় একটি চপের দোকানে সাহায্য করতেন। এখন আর সেরকম ভাবে কারোর সাথে কথা বলেন না

শনিবার সকাল সাড়ে দশটা নাগাদ এক ব‍্যক্তি কোনো দরকারে তাঁকে ডাকাডাকি করছিলেন। দীর্গক্ষন ডাকাডাকি করে সাড়া না মেলায় পাশের বাড়ির লোকদেরও ডাকেন ও তারাও ডাকাডাকি করেন। কিন্তু কোন উত্তর না পাওয়ায় শেষমেষ তারা দম্পতির ঘরে দরজা খুলে ঢুকে পড়েন। দরজা খুলে দেখেন দুজনে মাটিতে পড়ে আছেন। বৃদ্ধার পায়ে ইলেকট্রিক তার জড়ানো এবং বৃদ্ধের হাতে একিরকম তার ধরা।

তারাই সঙ্গে সঙ্গে খবর দেন চুচুড়া থানায়। চুচুড়া ইমামবাড়া হসপিটালে তাদের নিয়ে যাওয়া হলে তাদের মৃত ঘোষনা করা হয়।

খবর পেয়ে দম্পতির মেয়ে জামাই নাতিরা ঘটনাস্থলে আসেন। স্থানীয় সদ‍্যপ্রাক্তন কাউন্সিলর সৌমিত্র ঘোষ চলে আসেন। তাদের মেয়েরা জানিয়েছেন, নারকেল গাছ ভেঙে পড়া নিয়ে তর্ক বিতর্ক হয় ভাইপোর সঙ্গে। তবে ঘটনাটা প্রাথমিকভাবে আত্মহত‍্যা মনে হলেও আত্মহত‍্যা না খুন তা নিয়ে সন্দেহ আছে।

- Advertisment -

জনপ্রিয়

সরস্বতী নাট্যোৎসবের দ্বিতীয় পর্যায় অনুষ্ঠিত হতে চলেছে উত্তর চব্বিশ পরগনার অশোকনগরে

করোনা প্রকোপ খানিক শান্ত হতে না হতেই এই শীতের মরসুমে নাট্যপিপাসু দর্শকদের কাছে সবচেয়ে আনন্দের বিষয় কলকাতা সহ পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন প্রান্তে অনুষ্ঠিত হওয়া নাট্যোৎসবে...

“পাই” এর উৎসবে মাতলো কলকাতা। ২০ থেকে ২৬ শে জানুয়ারি পর্যন্ত চললো সেলিব্রেশন

কলকাতায় গল্ফগ্রীনে পুরো সপ্তাহ ধরে চললো "পাইয়ের উৎসব"। "দ্য পাই হাউসের" পক্ষ থেকে আন্তর্জাতিক পাই ডে উপলক্ষে ২০ থেকে ২৬ শে জানুয়ারি সেলিব্রেট করা...

কলকাতা প্রেক্ষাপট এর নাট্য – পার্বণ

ভারতীয় সংকৃতির পীঠস্থান আমাদের এই বাংলা । নাট্যচর্চা বাংলার তথা ভারতীয় সংস্কৃতির এক অভূতপূর্ব ধারাকে বহন করে নিয়ে চলেছে প্রাচীনকাল থেকেই । বরাবরই বিভিন্ন...

সুযোগ পেলে আমিও স্বাস্থ্য সাথীর কার্ড করাবো” বললেন দিলীপ ঘোষ

মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নে এবার সামিল রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। স্বাস্থ্য সাথীর কার্ড করেছেন দিলীপ ঘোষ ও তার পরিবার এমনই দাবি করলেন বীরভূম...