Home দেশ চা বিক্রেতার মেয়ে এখন এয়ারফোর্সের ফাইটার পাইলট

চা বিক্রেতার মেয়ে এখন এয়ারফোর্সের ফাইটার পাইলট

স্বপ্নপূরণের পথে বাঁধা সবসমই আসে, কিন্তু সেইসব বাঁধা কাটিয়ে লক্ষ্যে পৌঁছতে পারে খুব কম জনই, কেউ হার মেনে যায় অর্থকষ্টে, তো কেউ ব্যর্থতার কাছে, তবে কিশোরী আঁচল গঙ্গওয়াল অটল ছিল তার লক্ষ্যে এবং অবশেষে তার স্বপ্ন পূরণও হয়, দারিদ্র্যতার কাছে হার না মেনে বায়ুসেনার পাইলট হয়েছে ভোপালের ৪০০ কিমি দূরে নীমচ শহরের বাসিন্দা আঁচল।

সালটা ২০১৩, টিভির পর্দায় কেদারনাথ দেখে আঁচল গঙ্গওয়াল স্বপ্ন দেখে বায়ুসেনার পাইলট হওয়ার। কিন্তু অনেকেই মনে করেন, যাদের টাকা নেই তাদের স্বপ্ন দেখার অধিকারও নেই, আঁচলের বাবা একজন
চায়ের দোকান চালায়, তাই তার এমন স্বপ্ন যে অবাস্তব, অপূরনীয় এমনটা বলেছিল অনেকেই, অনেকে আবার চাওয়ালার মেয়ের এমন স্বপ্ন নিয়ে বিদ্রুপও করে।

দক্ষ বাস্কেটবল খেলোয়াড় আঁচল পড়াশোনাতেও ছিল মেধাবী । তবে তাঁর এই স্বপ্নে প্রথমে তার পরিবারও সায় দেয়নি কিন্তু পরে তারা হার মানতে বাধ্য হয় আঁচলের স্বপ্নের কাছে।

মেয়ের স্কুলের বেতন জোগাড় করতে নানা সমস্যায় পড়তেন তার বাবা সুরেশ গঙ্গোয়ালের। একসময় চাওয়ালা নামে পরিচিত সুরেশ গঙ্গোয়াল এখন খ্যাত ‘এয়ারফোর্সের ফাইটার পাইলটের ‘ বাবা নামে।
তবে মেয়ের অনড় ইচ্ছার জন্য বাবা মায়ের ভূমিকাও কম ছিল না, মেয়ের পড়াশোনার খরচের জন্য কখনো হাত পাততে হয়েছে আত্মীয় পরিজনদের কাছে। আবার কখনও স্কুল-কলেজের বেতন নির্ধারিত সময়ে জমা দিতে না পারায় দিতে হয়েছে একাধিক অজুহাত। স্কুল এবং কলেজ পাশ করার পর ফাইটার পাইলট হওয়ার প্রবেশিকা পরীক্ষায় একাধিক বার ব্যর্থ হয় আঁচল। তবে হাল ছাড়েনি, পরিবারের আশা, নিজের স্বপ্ন কে পূরণ করতে ব্যর্থতাকে সাফল্যে রুপান্তরিত করতে দীর্ঘ সময় লাইব্রেরিতে থাকতে হত, সাফল্য আসে ষষ্ঠ প্রচেষ্টায়। যষ্ঠবার ভারতীয় বায়ুসেনার ফাইটার পাইলট হওয়ার পরীক্ষায় প্রতি ধাপে উত্তীর্ণ হওয়ার পর প্রশিক্ষণ পর্বেও সফল হয়ে ২৪ বছর বয়সী আঁচল গঙ্গওয়াল ফ্লাইং অফিসার হিসেবে সম্প্রতি যোগ দিয়েছেন ভারতী বায়ুসেনায়।
মেয়ের স্বপ্নপূরণে ভীষণ খুশি
আঁচলের বাবা মা।

- Advertisment -

জনপ্রিয়

সরস্বতী নাট্যোৎসবের দ্বিতীয় পর্যায় অনুষ্ঠিত হতে চলেছে উত্তর চব্বিশ পরগনার অশোকনগরে

করোনা প্রকোপ খানিক শান্ত হতে না হতেই এই শীতের মরসুমে নাট্যপিপাসু দর্শকদের কাছে সবচেয়ে আনন্দের বিষয় কলকাতা সহ পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন প্রান্তে অনুষ্ঠিত হওয়া নাট্যোৎসবে...

“পাই” এর উৎসবে মাতলো কলকাতা। ২০ থেকে ২৬ শে জানুয়ারি পর্যন্ত চললো সেলিব্রেশন

কলকাতায় গল্ফগ্রীনে পুরো সপ্তাহ ধরে চললো "পাইয়ের উৎসব"। "দ্য পাই হাউসের" পক্ষ থেকে আন্তর্জাতিক পাই ডে উপলক্ষে ২০ থেকে ২৬ শে জানুয়ারি সেলিব্রেট করা...

কলকাতা প্রেক্ষাপট এর নাট্য – পার্বণ

ভারতীয় সংকৃতির পীঠস্থান আমাদের এই বাংলা । নাট্যচর্চা বাংলার তথা ভারতীয় সংস্কৃতির এক অভূতপূর্ব ধারাকে বহন করে নিয়ে চলেছে প্রাচীনকাল থেকেই । বরাবরই বিভিন্ন...

সুযোগ পেলে আমিও স্বাস্থ্য সাথীর কার্ড করাবো” বললেন দিলীপ ঘোষ

মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নে এবার সামিল রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। স্বাস্থ্য সাথীর কার্ড করেছেন দিলীপ ঘোষ ও তার পরিবার এমনই দাবি করলেন বীরভূম...