Home ফিচার বিশ্বাসঘাতকতার অভিশাপ মেটেনা কখনও। মির্জাফর এসেছিলেন চুঁচুড়াতে এবং বর্ধমানে

বিশ্বাসঘাতকতার অভিশাপ মেটেনা কখনও। মির্জাফর এসেছিলেন চুঁচুড়াতে এবং বর্ধমানে

বহুমূল্য সম্পদের সহজ প্রাপ্তি বলতে এই বিশ্বাস। কিন্তু যে এটার সঠিক মর্যাদা দিতে পারেনা তাকে ঘৃনার চোখে দেখে আর তাকে বিশ্বাসঘাতক বলে ডাকা হয়। এমনকি মিরজাফর বলেও ডাকা হয়।
এই ভারতবর্ষ বহু গুণী মানুষের জন্মস্থল। প্রশ্ন জাগে এই পবিত্র ভারতের মাটিতে কিভাবে জন্ম হলো এই বর্বর নিমকহারাম মিরজাফরের? কিন্তু না, এই ভারতের মাটিতে জন্ম হয়নি তাঁর। পারস্যে জন্ম মিরজাফরের। তারপর সে ভারতে আসে।



প্রথমে মিরজাফর নবাব আলিবর্দি খানের সেনাপতি ছিলেন এবং সবথেকে বিশ্বস্থ মানুষ ছিলেন। নবাব আলিবর্দি খান মুগ্ধ ছিলেন মিরজাফরের দুরদর্শিতায়। কিন্তু কিছু বছর পরেই মিরজাফর বর্ধমানে বসে নবাব আলিবর্দি খান কে হত্যা করে তাঁর সাম্রাজ্য ও সিংহাসন দখলের ষড়জন্ত্র করতে শুরু করে দেন মিরজাফর। কিন্তু তার কুপরিকল্পনা সফলতা লাভ না করায় মনের ভিতরেই ফুঁসতে থাকেন মীরজাফর। এরপর নবাবের উত্তরসূরি হিসেবে যখন সিরাজ উল দৌল্লা নবাবের সিংহাসনে বসেন তখন থেকেই তিনি পুণরায় ফন্দি আঁটতে শুরু করে দেন যে কিভাবে সিরাজ-এর থেকে সিংহাসন কেড়ে নিয়ে নিজে বসবেন।




তিনি গোপনে ব্রিটিশ সাহেব লর্ড ক্লাইভের সাথে মেলামেশা শুরু করেন এবং নবাবের দরবারের গোপন তথ্য ব্রিটিশদের হাতে তুলে দিতে থাকেন। পলাশির যুদ্ধের সময় নবাবের গোপন পরিকল্পনা ও রণনীতিও ব্রিটিশদের কাছে ফাঁস করে দেন তিনি। ফলপ্রসূত ব্রিটিশদের কাছে নবাব সিরাজ পরাস্থ হলে ব্রিটিশরা মীরজাফর কে ব্রিটিশ অধিকৃত বাংলার নবাব এর স্বীকৃতি দেন এবং তিনি নবাবের সিংহাসনে বসেন।




কিন্তু কয়েক বছরের মধ্যেই তার কার্যকালাপ ও গতিবিধিতে তিক্ত হয়ে ব্রিটিশ সরকার তাঁকে পদচ্যুত করেন এবং মীরজাফরের জামাতা মীর-কাশিম কে বাংলার নবাব করেন।
মীরজাফর নিজের ক্ষমতার পুণরুত্থানের জন্য চলে আসেন হুগলীর চুঁচুড়াতে। এখানে এসে তিনি ডাচ সৈন্যদের সাথে মিলে ব্রিটিশদের সাথে লড়াই এর পরিকল্পনা করতে শুরু করে দেন এবং চুঁচুড়া যুদ্ধের পটভূমি তৈরি করেন…
পরবর্তী সময় ব্রিটিশ সেনা



পুণরায় তাঁকে নবাবের সিংহাসনে বসান, এবং মৃত্যু পর্যন্ত তিনি নবাবের আসনেই ছিলেন। আজও তাঁর বাসভবন নিমক হারাম দেউরি নামে পরিচিত।

- Advertisment -

জনপ্রিয়

শ্যুটিং শুরু হলো ৮/১২- র, সঙ্গীত পরিচালক হিসেবে যোগ দিলেন সৌম্য ঋত…

৮/১২'র শুভ মহরত হয়ে গেল। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পরিচালক অরুন রায়, প্রযোজক কান সিং সোধা, অভিনেতা কিঞ্জল নন্দ, রেমো, অর্ণ মুখোপাধ্যায়, অনুষ্কা চক্রবর্তী ছাড়াও...

টিম সোহম ও হাসি খুশি ক্লাবের পক্ষ থেকে এক অভিনব উদ্যোগ “অন্য ইলিশ ও চিংড়ি উৎসব”….

টিম সোহম ও হাসি খুশি ক্লাবের পক্ষ থেকে ২৫ শে জুলাই দুপুর ১২টায় আয়োজন করা হয়েছিল "অন্য ইলিশ ও চিংড়ি উৎসব". বরানগর, টেবিন রোড,...

এবার “চারেক্কে প্যাঁচ” নিয়ে হাজির পরিচালক অরূপ সেনগুপ্ত…

অবাক লাগছে না? হ্যাঁ সত্যি অবাক লাগার মতোই কথা. দম ফাটানো হাসির ছবি নিয়ে হাজির পরিচালক অরূপ সেনগুপ্ত. "এ.কে.Ray", "আনএথিক্যাল"- এর পর "চারেক্কে প্যাঁচ"...

প্রথমবার বাংলা ছবিতে অভিনয় করতে চলেছেন রিতেশ দেশমুখ…

এই প্রথম বাংলা ছবিতে অভিনয় করতে চলেছেন বলিউডের জনপ্রিয় নায়ক রীতেশ দেশমুখ। ছবির নাম ‘অন্তর্দৃষ্টি’। এই ছবিতে তার বিপরীতে অভিনয় করতে দেখা যাবে টলিউড...