Home সাক্ষাৎকার "লকডাউনে কেমন কাটছে সময়?" সাক্ষাৎকারে Playback singer Trissha Chatterjee

“লকডাউনে কেমন কাটছে সময়?” সাক্ষাৎকারে Playback singer Trissha Chatterjee

“শুধু তুই, শুধু তুই
আর চাইছি না কিছুই”

প্রসেন দা-এর লেখা আর অমলাণ দার সুরে এই গানটি জাস্ট ফাটাফাটি। আর যে না থাকলে হয়ত গানটি আমাদের মনে এতটা জায়গা দখল করে নিতে পারতো না, সে আর অন্য কেউ না, আমাদের সকলের প্রিয় তৃষা চ্যাটার্জি। তার মিষ্টি সুরের কারনে সে খুব অল্প সময়ের মধ্যেই সকল বয়সের মানুষের মনে জায়গা করে নিয়েছে।

একজন শিল্পীর দৈনন্দিন জীবন খুবই ব্যস্ততায় ভরা থাকে, সেই কারণেই হয়তো একজন শিল্পী তার এই ব্যস্ততা এড়িয়ে নিজের সাথে বা নিজের পরিবারের সাথে যথেষ্ট সময় কাটিয়ে উঠতে পারেনা না। কিন্তু এখন লকডাউনের কারণে প্রতিটি মানুষই তার পরিবারের সাথে এবং নিজের সাথে অনেকটা সময় কাটিয়ে উঠতে পারছে।
আজ নিজের অনেক মূল্যবান সময় থেকে কিছুটা সময় বার করে আমাদের সাথে আড্ডা দিতে এসেছে তোমাদের আমাদের সকলের প্রিয় তৃষা চ্যাটার্জি

trissha chatterjee professional singer
Trissha Chatterjee

প্রশ্ন: হঠাৎ করে এইরকম গৃহবন্দী হয়ে পার্সোনালি আপনি কেমন অনুভব করছেন?

তৃষা: আসলে প্রথমে একটু মনে হচ্ছিলো যে অসুবিধা হবে, কিন্তু এখন আর সেটা মনে হচ্ছে না। আর বিভিন্ন ব্যস্ততার কারণে সেই স্কুল জীবনের পর থেকে বিগত দশ বছরে এই রকম ভাবে পরিবারের সকলের সাথে এতটা সময় কাটানোর সুযোগ হয়ে ওঠেনি। মনে হচ্ছে যেন আবার ছোটবেলা-টাকে ফিরে পেয়েছি। বাড়ির সকলের সাথে থাকতে থাকতে কখন যে সময় পার হয়ে যাচ্ছে বুঝতেই পারছি না।

প্রশ্ন: এই লকডাউনে আপনার দৈনন্দিন জীবনের রুটিনটি কি? মানে এই দিন গুলো আপনি কেমন ভাবে কাটাচ্ছেন?

তৃষা: যেহেতু লকডাউনের কারণে বাড়ি থেকে বেড়োনো হচ্ছে না, আর হাতে সময় অফুরন্ত সেহেতু বেশ রাত করে ঘুমোতে যাচ্ছি 😴, একটু বেলা করেই উঠছি ঘুম থেকে। এর পাশাপাশি অনেক ভালো ভালো সিনেমা, ওয়েব সিরিজ যেগুলো দেখবো ভেবেও ব্যস্ততার জেরে দেখে ওঠা হয়নি সেগুলো-ও দেখছি। সব থেকে বড় ব্যাপার হলো অন্য সময় রেওয়াজের জন্য শুধু সকালটাই সময় পেতাম কিন্তু এখন বিকালের সময় টাও পাচ্ছি রেওয়াজের জন্য।

প্রশ্ন:এই গৃহবন্দী সময় আপনি আপনার নিত্যদিনের রুটিনে কি পরিবর্তন এনেছেন যা আপনার অন্য সময় করে হয় ওঠা হয় নি?

তৃষা: হ্যাঁ, আমি এই ব্যাপারে একটু আগেই আলোকপাত করলাম যে “হাজারও ব্যাস্ততার কারনে আমি সকালের সময়টাই রেওয়াজের জন্য পেতাম কিন্তু এখন বিকালের সময়টাও পাচ্ছি। আর এই পরিবর্তনটা শুধুমাত্র লকডাউনের জন্য নয়, পরেও চালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করবো।

প্রশ্ন: এমন কোন খাবার যেটা আপনার খেতে খুব ইচ্ছা করছে কিন্তু লকডাউনের কারণে খেতে যেতে পারছেন না?

তৃষা: সেরকম ভাবে নির্দিষ্ট কোনো খাবারের নাম আমি বলবো না। তবে হ্যাঁ আমি খেতে ভীষণ ভালোবাসি। স্ট্রীট ফুড আমার খুব পছন্দের, এছাড়াও মটন পোলাও, আইসক্রিম ইত্যাদি। খুব ইন্টারেস্টিং ব্যাপার হলো আমি আইসক্রিম খেতে এতটাই ভালোবাসি যে মাঝে মাঝেই পার্কস্ট্রিট-এ রাত সাড়ে ১২ টা ১ টা নাগাদ আইসক্রিম খেতে চলে যাই😍

প্রশ্ন: লকডাউন মিটলে যে কাজটি আপনি প্রথম করবেন?

তৃষা: সেরকম নির্দিষ্ট ভাবে কোনো কাজ নেই। তবে অনেক গানের রেকরডিং পেন্ডিং পরে আছে, এছাড়াও আমার গানের একটা মিউজিক ভিডিও আসতে চলেছে যার কাজও পেন্ডিং পরে আছে যা লকডাউনের কারণে করে ওঠা সম্ভব হয় নি, তো বলতে পারেন লকডাউন মিটলে এই কাজ গুলোই প্রথম করবো।

প্রশ্ন: লকডাউন মিটলে আপনি প্রথম কার সাথে দেখা করবেন?

তৃষা: এই ব্যাপারে আমি খুবই Confused, আমার খুবই প্রিয় বন্ধু-বান্ধবীর সাথে দেখা করার ইচ্ছা আছে। আর আমি শপিং করতে খুব ভালোবাসি তাই লকডাউন মিটলে শপিং করার ইচ্ছাও আছে। তাই আমার কাছে এই প্রশ্নের উত্তর দেওয়াটা খুব মুশকিল যে আমি কার সাথে প্রথম দেখা করবো‌।

প্রশ্ন: এই লকডাউনে আপনাকে সব থেকে বেশি কোন জিনিসটা irritated feel করাচ্ছে?

তৃষা: সেরকম ভাবে কোনো কিছুই আমাকে irritated feel করায় না। তবে আমি ভীষণ ভাবেই আমার স্টেজ, রেকর্ডিং স্টুডিও, আমার দর্শক বন্ধুদের খুব মিস করছি। এক কথায় বলতে গেলে আমি আমার জীবনের ব্যস্ততা গুলোকে মিস করছি।

প্রশ্ন: এই লকডাউন আপনার প্রফেশনাল ক্যারিয়ারে কোনো প্রভাব ফেলবে কি?

তৃষা: বলতে গেলে এই লকডাউন আমাদের মত শিল্পীদের জীবনে প্রভাব ফেলতে শুরু করে দিয়েছে। কারণ মিউজিসিয়ান বা শিল্পী এমন একটা প্রফেশন যেখানে “ওয়ার্ক ফ্রম হোম” বলে কিছু হয় না। এমন অনেক শিল্পী আছে যাদের স্টেজ শো করেই সংসার চলে, তারা আজ খুব অসুবিধার মধ্যে আছে। আর এটা শুধুমাত্র দেশের কথা নয় সারা বিশ্ব এই বিপদের কবলে পরে আছে যেখান থেকে আমাদের সকলকে উঠে দাঁড়াতে হবে। তবুও আমরা যথাযথ ভাবে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে মানুষের মনোরঞ্জন করার চেষ্টা করছি। দেশের খারাপ সময় তাদের বিভিন্ন বিনোদনের মাধ্যমে খুশি রাখার চেষ্টা করছি আর সেটা আমরা করেও যাবো।

প্রশ্ন: যারা এই ভয়াবহ পরিস্থিতিতে নিজেদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দিন রাত কাজ করে চলেছেন তাদের উদ্দেশ্যে আপনি কি বলবেন?

তৃষা: সত্যি তাদের ধন্যবাদ জানানোর মতো কোনো ভাষা আমার কাছে নেই। তাদের জন্য যতই বলবো কম মনে হবে। আমি মন থেকে তাদের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করি।

প্রশ্ন: সবশেষে আপনি লকডাউনে আপনার শ্রোতাদের উদ্দেশ্যে কি বলতে চান?

তৃষা: একটা কথা বলবো আমাদের দেশের প্রধানমন্ত্রী, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী যে ভাবে এই মহামারীর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছেন এবং সকল মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন তাদের এই পদক্ষেপ আমাকে ভীষণ ভাবে প্রভাবিত করেছে।
আমার শ্রোতাদের আমি একটা কথাই বলবো আপনারা পজিটিভ মনোভাব নিয়ে থাকুন। সর্বোপরি সবাই সুস্থ থাকুন, সুরক্ষিত থাকুন। আসুন আমরা সবাই মিলে একসাথে ভালো থাকার চেষ্টা করি। দেখবেন এই খারাপ সময় টাও খুব তাড়াতাড়ি আমরা কাটিয়ে উঠবো।

তৃষা আরো বলেন “তার জীবনে গানের শুরু তার মায়ের হাত ধরেই”। তৃষা জানিয়েছে যে তিনি হাসি খুশি থাকতে খুব পছন্দ করে। তৃষার জীবনে চড়াই উৎরাই অনেক এসেছে। তাতে তৃষার জীবনের সাফল্যের পথ চলা থেমে থাকেনি। সর্বত্রই এক দৃঢ় মানসিকতা নিয়ে এগিয়ে চলেছে তৃষা।

সব শেষে আনন্দবাজার অনলাইনের পক্ষ থেকে তৃষা কে জানাই অসংখ্য ধন্যবাদ। তার মহামূল্যবান সময় থেকে আমাদের কিছুটা সময় দেওয়ার জন্য।
আমাদের তরফ থেকে আপনার আগামী দিনের জন্য অনেক শুভেচ্ছা রইল। আপনি ও আপনার পরিবার ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন, এবং সুরক্ষিত থাকুন এই কামনাই করি।

কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মদিন উপলক্ষে একটি রবীন্দ্র সংগীত পোস্ট করলেন তৃষা

Pora Mon song from bengali film Ke Tumi Nandini By Trissha Chatterjee

Trissha Chatterjee Facebook Page Link: https://www.facebook.com/TrisshaChatterjee/

Trissha Chatterjee Instagram Link: https://instagram.com/i_am_trissha?igshid=1c757v99vec2z

Trissha Chatterjee YouTube Channel Link: https://www.youtube.com/channel/UCAUJLrhGWzRUUmboapycH6g

Anandabazar Online Facebook Page Link: https://www.facebook.com/onlineanandabazar/

- Advertisment -

জনপ্রিয়

মায়ের মৃত্যুদিনে পথ পশুদের কল্যাণার্থে পারমিতা মুন্সী ভট্টাচার্য এর পরিচালনায় হয়ে গেলো ‘বর্ষ বরণে বিবিয়ানা’

পথপশুদের কল্যাণার্থে শিবানী মুন্সী প্রোডাকশনের 'বর্ষবরণে বিবিয়ানা' শীর্ষক বাংলা নববর্ষের ক্যালেন্ডার প্রকাশ হয়ে গেল। এই ক্যালেন্ডার থেকে সংগৃহীত অর্থ খরচ করা হবে পথ পশুদের...

কি করলে আপনাকে বা আপনার পরিবারকে ছুঁতে পারবেনা করোনা

বর্তমানের ভয়াবহ পরিস্থিতি থেকে নিস্তার পাওয়াটাই এখন সকল মানুষের একমাত্র লক্ষ্য. কিন্তু কিভাবে পাবো এই ভয়ানক কোবিড ১৯ এর হাত থেকে মুক্তি? কোবিড ১৯ ভাইরাস...

অতিমারির মধ্যেও প্রকৃতির আরো কাছে ফিরে যাচ্ছেন জয়া আহসান..

করোনা নামক ভয়ঙ্কর ভাইরাস বাংলাদেশেও ছড়িয়ে পড়েছে। সকলকে নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান। কিন্তু শুভেচ্ছা জানাতে গিয়ে তার কণ্ঠে বিষন্নতা রয়েছে। চারিদিকে...

চারিদিকে অক্সিজেনের হাহাকার, এই পরিস্থিতিতে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন টলি তারকারা…

গোটা বিশ্ব আজ করোনা মহামারীর কবলে। Covid এর দ্বিতীয় ঢেউ তে লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমণ সাথে মৃত্যু। করোনার দ্বিতীয় ঢেউতে এই প্রথম দৈনিক সংক্রমণ বেড়ে...