Home জেলার খবর শ্রীরামপুর রাজবাড়ীর দূর্গা পুজোয় উপস্থিত ছিলেন স্বয়ং নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু

শ্রীরামপুর রাজবাড়ীর দূর্গা পুজোয় উপস্থিত ছিলেন স্বয়ং নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু

৪৫০ বছর ধরে চলে আসছে
ঐতিহ্য সমৃদ্ধ শ্রীরামপুর রাজবাড়ির দুর্গাপুজো বর্তমানে জাঁকজমকপূর্ণ না হলেও মায়ের পুজো হয় নিষ্ঠা সহকারে

শ্রীরামপুর রাজবাড়ির সেই বিশাল ব্যাপার, রাজকোষ, প্রতিপত্তি এখন না থাকলেও বজায় আছে নিষ্ঠা সহকারে দুর্গা পুজো।
কিভাবে শুরু হয় এই পুজো, তা দেখতে গেলে পিছিয়ে যেতে হয় অতীতের পাতায়, যখন পাটুলির বৈষ্ণব ব্রাহ্মণ লক্ষ্মণ চক্রবর্তীকে শ্রীরামপুরের গঙ্গার তীরবর্তী বিশাল জমি, প্রাসাদের ন্যায় বাড়ি দেন শেওড়াফুলির রাজ পরিবারের রাজা, বিনিময় মূল্য ছিল একটি মাত্র স্বর্ণ মুদ্রা।



দানে পাওয়া এই বাড়ি হয়ে ওঠে শ্রীরামপুর রাজবাড়ি। এই বাড়িতে বংশপরম্পরায় রাজত্ব করেছেন লক্ষ্মণ চক্রবর্তী, রঘুরাম গোস্বামী থেকে আরও অনেকে।

বিশালাকার এই রাজবাড়ির চারিদিকে এবং বিশালাকার থাম, বৃহৎ দালান এর ঐতিহ্য।
তবে আগে দালানের জায়গায় ছিল পুকুর, সেই পুকুরে ডুবে পরিবারের এক সদস্য মারা যাওয়ায় পুকুর বুঝিয়ে তৈরী হয় নাটমন্দির।



একসময়ে দুর্গাপুজো বিশাল আয়োজন হত এই রাজবাড়িতে। ধুমধাম করে হতো মায়ের পুজো, শতাধিক মানুষ আসত৷ তাদের খাওয়ানো হতো। আগের মতো ধুমধাম করে এখন আর পুজো হয়না ঠিকই তবে এখনো পুজোয় সমস্ত আচার নিয়ম নিষ্ঠা মেনে চলা হয়।
বিসর্জনের আগের দিন বাড়ির এয়োস্ত্রীরা ইলিশ মাছ, পান্তাভাত ও পান খেয়ে বরন করেন মা কে।সকলে মেতে ওঠেন সিঁদুর খেলায়। তারপর গঙ্গায় বিসর্জন দেওয়া হয় মাকে।



৪৫০ বছরের পুরোনা এই পুজো যখন বড় করে হতো তখন পুজোর সমস্ত ব্যয়ভার নেওয়া হত রাজ কোষ থেকে, কিন্তু এখন আর অবস্থা তেমন না থাকায় বাড়ির বিভিন্ন ঘরের ভাড়া থেকে নেওয়া হয় পুজোর খরচ।
এই রাজবাড়িতে বহু সিনেমার শুটিং ও দেখা গেছে। বাংলা সিনেমা ‘ভুতের ভবিষ্যত’ এর শুটিং ও হয়েছে এই রাজবাড়িটিতে।



ঐতিহ্যমন্ডিত এই রাজবাড়ির পুজোয় একসময় উপস্থিত থাকতেন নেতাজি সুভাষচন্দ্র বোস এবং আরও বহু স্বাধীনতা সংগ্রামী।

- Advertisment -

জনপ্রিয়

সরস্বতী নাট্যোৎসবের দ্বিতীয় পর্যায় অনুষ্ঠিত হতে চলেছে উত্তর চব্বিশ পরগনার অশোকনগরে

করোনা প্রকোপ খানিক শান্ত হতে না হতেই এই শীতের মরসুমে নাট্যপিপাসু দর্শকদের কাছে সবচেয়ে আনন্দের বিষয় কলকাতা সহ পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন প্রান্তে অনুষ্ঠিত হওয়া নাট্যোৎসবে...

“পাই” এর উৎসবে মাতলো কলকাতা। ২০ থেকে ২৬ শে জানুয়ারি পর্যন্ত চললো সেলিব্রেশন

কলকাতায় গল্ফগ্রীনে পুরো সপ্তাহ ধরে চললো "পাইয়ের উৎসব"। "দ্য পাই হাউসের" পক্ষ থেকে আন্তর্জাতিক পাই ডে উপলক্ষে ২০ থেকে ২৬ শে জানুয়ারি সেলিব্রেট করা...

কলকাতা প্রেক্ষাপট এর নাট্য – পার্বণ

ভারতীয় সংকৃতির পীঠস্থান আমাদের এই বাংলা । নাট্যচর্চা বাংলার তথা ভারতীয় সংস্কৃতির এক অভূতপূর্ব ধারাকে বহন করে নিয়ে চলেছে প্রাচীনকাল থেকেই । বরাবরই বিভিন্ন...

সুযোগ পেলে আমিও স্বাস্থ্য সাথীর কার্ড করাবো” বললেন দিলীপ ঘোষ

মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নে এবার সামিল রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। স্বাস্থ্য সাথীর কার্ড করেছেন দিলীপ ঘোষ ও তার পরিবার এমনই দাবি করলেন বীরভূম...