Home সাক্ষাৎকার ভালো স্ত্রিপ্ট অভিনয়কে জীবন্ত করে- সাইফুর রহমান কাজল

ভালো স্ত্রিপ্ট অভিনয়কে জীবন্ত করে- সাইফুর রহমান কাজল

বাংলাদেশের ব্যতিক্রমধর্মী এবং আলোচিত নাট্যকার মোঃ সাইফুর রহমান কাজল
সম্প্রতি তিনি নাট্যজগতের নানা দিক নিয়ে কথা বলেছেন এ,বি,ও পত্রিকার
সাথে। সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন বাংলাদেশের প্রখ্যাত সাংবাদিক অর্ক রায় সেতু

প্রশ্ন: কেমন আছেন?

সাইফুর রহমান : আলহামদুলিল্লাহ। আল্লাহর রহমতে অনেক ভাল আছি।

প্রশ্ন: কখন থেকে নাটকের জন্য স্ক্রিপ্ট লেখা শুরু করলেন এবং কাদের দেখে অনুপ্রাণিত হলেন?

সাইফুর রহমান : ২০১৮ সালের শুরুর দিকে নাটক লেখা শুরু করি।আসলে আমরা যারা ৯০ দশকের বিটিভি নাটক দেখে বড় হয়েছি তাদের কাছে নাটক লেখার অনুপ্রেরণা বলতে, হুমায়ূন আহমেদ, ইমদাদুল হক মিলন, সেলিম আল দীন, মমতাজউদ্দীন আহমেদ অথবা ধরেন আব্দুল্লাহ আল মামুন এদেরকেই বুঝায়। বলতে পারে না আমিও এর ব্যতিক্রম নয়।

প্রশ্ন: কথায় আছে স্ক্রিপ্ট নাটকের প্রাণ, আপনি এই বিষয়টির সাথে কতটা সহমত?

সাইফুর রহমান : এটা সর্বজন স্বীকৃত কথা। একটা ভালো স্ক্রিপ্ট পুরো নাটকের টিমের মধ্যে প্রাণ সঞ্চার করে। সবাই গল্পের মধ্যে ঢুকে যায়। অভিনয়টাও বাস্তব হয়ে ধরা দেয়। ঠিক দুর্বল স্ক্রিপ্টের বেলায় বিপরীত চিত্র দেখা যায়।

প্রশ্ন : আপনার লেখা নাটক গুলো শহুরে জীবনের আদলে করা এই প্রবণতা কেনো?

সাইফুর রহমান : হয়তো শহরের নাটক বেশি লিখেছি। কিন্তু আমার গ্রামের নাটকের সংখ্যাও কম নয়। তবু বলতে পারেন জীবনের বেশিরভাগ অংশটাই শহরে কাটিয়েছি বলে হয়তো শহুরে নাটক লেখার প্রবণতা নিজের মধ্যে বেশি কাজ করে। তবে হৃদয়ের মধ্যে মাটির টানকে আমি কখনো অগ্রাহ্য করিনা। তাই সুযোগ পেলেই গ্রামের নাটক লিখে ফেলি। বাবার কেটলি, কয়লা, বজলু মিয়ার সিগন্যাল বা লটারি বউ এর প্রমাণ। এসব নাটকে আপনি মাটির টান অনুভব করবেন।

প্রশ্ন: সমাজ পরিবর্তনে টিভি নাটকের স্ক্রিপ্টের প্রয়োজনীয়তা অনেক, এ নিয়ে আপনার মন্তব্য কি?

সাইফুর রহমান : অবশ্যই আছে।যখন সোশ্যাল মিডিয়া ছিলনা তখন কিন্তু সমাজ পরিবর্তনের মূল বিবর্তনটা আমরা টিভি নাটকের মাধ্যমে বেশি জেনেছি। এখনো এই প্রবণতা কমেনি। ইউটিউব এ নাটকে লাখ লাখ ভিউয়ার্স এর প্রমাণ দেয়।সে ক্ষেত্রে আমাদের রাইটারদের দায়িত্বশীল হয়ে সমাজ পরিবর্তনের কথা লিখতে হবে। সমাজের অসামঞ্জস্যতা তুলে ধরতে হবে। তবেই হয়তো আমরা সুফল পাবো।

প্রশ্ন : যারা স্ক্রিপ্ট লিখতে চাই তাদেরকে কি পরামর্শ দিবেন?

সাইফুর রহমান : স্ক্রিপ্ট যারা লিখতে চান তাদেরকে অবশ্যই জ্ঞান অর্জন করে এখানে আসতে হবে। ভালো-মন্দের পার্থক্যটা বুঝতে হবে। প্রচুর পড়াশোনা করতে হবে। নিজের মধ্যে একটা সততা থাকতে হবে। যে ঐতিহ্য নিয়ে আমাদের বাংলা নাটক যুগ যুগ ধরে টিকে রয়েছে সেই ঐতিহ্যকে নিজের মধ্যে লালন করতে হবে’।নকল প্রবণতা এবং হুটহাট করে নাম কামানোর জন্য নাটকের জগতে আসা উচিত নয়।এতে সাময়িক আনন্দ পাওয়া গেলেও একটা সময় আপনি ঝরে পড়বেন। সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে একজন স্ক্রিপ্ট রাইটার এর সৎ হওয়া খুবই জরুরী।

প্রশ্ন: প্রিয় লেখক?

সাইফুর রহমান : আমার প্রিয় লেখকদের মধ্যে হুমায়ূন আহমেদকে আমি আদর্শ হিসেবে মানি। বলতে পারেন আমি তার অন্ধ ভক্ত। এছাড়া শহীদুল্লাহ কায়সার, মমতাজউদ্দীন আহমেদ, ইমদাদুল হক মিলন এবং সেলিম আল দীনের কথা বলতে হয়। এদের হাত ধরেই বাংলা নাটকের সমৃদ্ধি অর্জন হয়েছে।

প্রশ্ন: আপনার শখ কি?

সাইফুর রহমান : সবচেয়ে প্রিয় শখ হচ্ছে নিজের দেশ, বাংলাদেশকে ঘুরে ঘুরে দেখা। তাই সময় এবং অবসর পেলেই ছুটে চলে যাই বাংলাদেশের কোন না কোন প্রান্তে ।অজানা গন্তব্যে।

সবশেষে এবিও পত্রিকা পক্ষ থেকে সাইফুর রহমান কে জানাই অসংখ্য ধন্যবাদ। তার মহামূল্যবান সময় থেকে আমাদের কিছুটা সময় দেওয়ার জন্য।
আমাদের তরফ থেকে আপনার আগামী দিনের জন্য অনেক শুভেচ্ছা রইল। আপনি ও আপনার পরিবারের সকলে ভালো থেকো, সুস্থ থেকো, এবং সুরক্ষিত থেকো এই কামনাই করি।

আমাদের ফেসবুক পেজটি লাইক করুন: https://facebook.com/abopatrika/

- Advertisment -

জনপ্রিয়

শুরু হয়ে গেলো দেব রুক্মিনীর ভালোবাসার নতুন সফর! “কিশমিশ”-এর শুভ মহরত…

বড়ো পর্দায় চ্যাম্প, কিডন্যাপ, ককপিট, কবীর, পাসওয়ার্ড এর মতো ছবিতে একসঙ্গে দেখা মিলেছে দেব রুক্মিণী জুটির. এবার ষষ্ঠ বার সিলভার স্ক্রিনে জুটি বাঁধতে চলেছেন...

ঘুম থেকে উঠে মানুন কিছু ছোট্ট টোটকা….

ফর্সা হতে চান! ঘুম থেকে উঠে মানুন কিছু ছোট্ট টোটকা এখন কেবল নারীরা নয়, পুরুষরাও নিজেকে সভান সুন্দর ও আকর্ষনীয় দেখাতে আগ্রহী। নিজেকে ফর্সা ও...

অতনু ঘোষের ছবি ‘শেষ পাতায়’ থাকছেন প্রসেনজিৎ-গার্গী-বিক্রম…

এই অতিমারীর পরিস্তিতি স্বাভাবিক হলেই ছন্দে ফিরবে টলিউড ইন্ডাস্ট্রি. পরবর্তী ছবির ঘোষণা করলেন পরিচালক অতনু ঘোষ. 'ময়ূরাক্ষী', 'রবিবার' এর পর অতনু ঘোষের "শেষ পাতা"...

অঙ্গ দান করলেন অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা সরকার…

এই করোনা পরিস্তিতিতে আগের বছর থেকেই বিভিন্ন অভিনেতা অভিনেত্রীদের দেখা গেছে সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়াতে. কিন্তু এবার এক অভিনব প্রয়াস অঙ্গ দান করতে এগিয়ে...