Home উৎসব দোলের দিন হয় মা দুর্গার বোধন! কেমন করে হলো শ্রীরামপুর দে পরিবারের...

দোলের দিন হয় মা দুর্গার বোধন! কেমন করে হলো শ্রীরামপুর দে পরিবারের দুর্গাপুজো

দোলের দিন হয় মা দুর্গার বোধন,জেনে নিন ২১৫ বছরের পুরনো শ্রীরামপুর দে পরিবারের দুর্গার পুজো সম্পর্কে

দোলের দিন মা দুর্গার আরাধনায় প্রতিবছর মেতে ওঠেন শ্রীরামপুরের বাসিন্দারা। বসন্তের আকাশে যখন চারিদিক রঙের মেলা, লাল,নীল, হলুদের রাঙিয়ে ওঠে সমস্ত পাড়া, সেই সময় শ্রীরামপুরের টাউন ক্লাবে দুর্গা পুজোয় আয়োজন শুরু হয়ে যায়। দোলে শ্রীরামপুর দে পরিবারে মা দুর্গার পুজো চলছে প্রায় ২১৫ বছর ধরে।

২১৫ বছরে এই পুজো শুধুমাত্র পারিবারিক পুজোর মধ্যেই সীমাবদ্ধ নেই, বর্তমানে এই পুজো দে বাড়ির পাশাপাশি শ্রীরামপুরের সাধারণ মানুষেরও পুজো হয়ে উঠেছে।রীতি নিয়ম মেনে দোলের দিন পূজা হয় দেবী মায়ের।

শ্রীরামপুরে দোলে শুরু হওয়া দুর্গা পুজোয় অনেক বিশেষত্ব আছে যা এই পুজোকে সাধারণ পুজোর থেকে আলাদা বানিয়েছে। এই মা দুর্গার প্রতিমায় মায়ের সাথে লক্ষ্মী, গণেশ, কার্তিক, সরস্বতী নয়, উমার দুই সখী জয়া ও বিজয়া সঙ্গে থাকেন।

দোলের দিন দেবী বোধন হয়, তারপর হয় ষষ্ঠী ও সপ্তমীর পুজো, তারপর মায়ের পায়ে আবির দিয়ে এলাকাবাসী মেতে ওঠে দোল খেলায়, দোলের পরের দিন হয় অষ্টমী। এলাকার প্রত্যেক সদস্য এদিন পুজো প্রাঙ্গণে মায়ের ভোগ খান, কোনও বাড়িতেই সেদিন রান্না হয় না। অষ্টমীর পরের দিন অর্থাৎ নবমীতে আগে ছাগ বলি দেওয়ার চল থাকলেও বর্তমানে তা বন্ধ। নবমীতে পুজোর ভোগে সেদিন দেওয়া হয় মাছ। শুধু এলাকাবাসীরাই নয় শ্রীরামপুর অঞ্চলের অনাথ আশ্রমের বাচ্চারাও পুজো প্রাঙ্গণে ভোগ খায়।নবনীর পরের দিন ইচ্ছা না থাকলেও মাকে বিদায় দিতেই হয়। দশমীতে মহিলারা দেবীবরণ করে সিঁদুর খেলে, রাতে শোভাযাত্রা বের হয়, শ্রীরামপুরের দে বাবুর ঘাটে দেবী মায়ের প্রতিমা বিসর্জন দেওয়া হয়। এই ভাবেই দোল থেকে শুরু হয়ে দশমীতে ভাসানের পর শ্রীরামপুরবাসী অপেক্ষা করে থাকে পরের বছর দোলের জন্য।

- Advertisment -

জনপ্রিয়

সরস্বতী নাট্যোৎসবের দ্বিতীয় পর্যায় অনুষ্ঠিত হতে চলেছে উত্তর চব্বিশ পরগনার অশোকনগরে

করোনা প্রকোপ খানিক শান্ত হতে না হতেই এই শীতের মরসুমে নাট্যপিপাসু দর্শকদের কাছে সবচেয়ে আনন্দের বিষয় কলকাতা সহ পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন প্রান্তে অনুষ্ঠিত হওয়া নাট্যোৎসবে...

“পাই” এর উৎসবে মাতলো কলকাতা। ২০ থেকে ২৬ শে জানুয়ারি পর্যন্ত চললো সেলিব্রেশন

কলকাতায় গল্ফগ্রীনে পুরো সপ্তাহ ধরে চললো "পাইয়ের উৎসব"। "দ্য পাই হাউসের" পক্ষ থেকে আন্তর্জাতিক পাই ডে উপলক্ষে ২০ থেকে ২৬ শে জানুয়ারি সেলিব্রেট করা...

কলকাতা প্রেক্ষাপট এর নাট্য – পার্বণ

ভারতীয় সংকৃতির পীঠস্থান আমাদের এই বাংলা । নাট্যচর্চা বাংলার তথা ভারতীয় সংস্কৃতির এক অভূতপূর্ব ধারাকে বহন করে নিয়ে চলেছে প্রাচীনকাল থেকেই । বরাবরই বিভিন্ন...

সুযোগ পেলে আমিও স্বাস্থ্য সাথীর কার্ড করাবো” বললেন দিলীপ ঘোষ

মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নে এবার সামিল রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। স্বাস্থ্য সাথীর কার্ড করেছেন দিলীপ ঘোষ ও তার পরিবার এমনই দাবি করলেন বীরভূম...