Home উৎসব দোলের দিন হয় মা দুর্গার বোধন! কেমন করে হলো শ্রীরামপুর দে পরিবারের...

দোলের দিন হয় মা দুর্গার বোধন! কেমন করে হলো শ্রীরামপুর দে পরিবারের দুর্গাপুজো

দোলের দিন হয় মা দুর্গার বোধন,জেনে নিন ২১৫ বছরের পুরনো শ্রীরামপুর দে পরিবারের দুর্গার পুজো সম্পর্কে

দোলের দিন মা দুর্গার আরাধনায় প্রতিবছর মেতে ওঠেন শ্রীরামপুরের বাসিন্দারা। বসন্তের আকাশে যখন চারিদিক রঙের মেলা, লাল,নীল, হলুদের রাঙিয়ে ওঠে সমস্ত পাড়া, সেই সময় শ্রীরামপুরের টাউন ক্লাবে দুর্গা পুজোয় আয়োজন শুরু হয়ে যায়। দোলে শ্রীরামপুর দে পরিবারে মা দুর্গার পুজো চলছে প্রায় ২১৫ বছর ধরে।

২১৫ বছরে এই পুজো শুধুমাত্র পারিবারিক পুজোর মধ্যেই সীমাবদ্ধ নেই, বর্তমানে এই পুজো দে বাড়ির পাশাপাশি শ্রীরামপুরের সাধারণ মানুষেরও পুজো হয়ে উঠেছে।রীতি নিয়ম মেনে দোলের দিন পূজা হয় দেবী মায়ের।

শ্রীরামপুরে দোলে শুরু হওয়া দুর্গা পুজোয় অনেক বিশেষত্ব আছে যা এই পুজোকে সাধারণ পুজোর থেকে আলাদা বানিয়েছে। এই মা দুর্গার প্রতিমায় মায়ের সাথে লক্ষ্মী, গণেশ, কার্তিক, সরস্বতী নয়, উমার দুই সখী জয়া ও বিজয়া সঙ্গে থাকেন।

দোলের দিন দেবী বোধন হয়, তারপর হয় ষষ্ঠী ও সপ্তমীর পুজো, তারপর মায়ের পায়ে আবির দিয়ে এলাকাবাসী মেতে ওঠে দোল খেলায়, দোলের পরের দিন হয় অষ্টমী। এলাকার প্রত্যেক সদস্য এদিন পুজো প্রাঙ্গণে মায়ের ভোগ খান, কোনও বাড়িতেই সেদিন রান্না হয় না। অষ্টমীর পরের দিন অর্থাৎ নবমীতে আগে ছাগ বলি দেওয়ার চল থাকলেও বর্তমানে তা বন্ধ। নবমীতে পুজোর ভোগে সেদিন দেওয়া হয় মাছ। শুধু এলাকাবাসীরাই নয় শ্রীরামপুর অঞ্চলের অনাথ আশ্রমের বাচ্চারাও পুজো প্রাঙ্গণে ভোগ খায়।নবনীর পরের দিন ইচ্ছা না থাকলেও মাকে বিদায় দিতেই হয়। দশমীতে মহিলারা দেবীবরণ করে সিঁদুর খেলে, রাতে শোভাযাত্রা বের হয়, শ্রীরামপুরের দে বাবুর ঘাটে দেবী মায়ের প্রতিমা বিসর্জন দেওয়া হয়। এই ভাবেই দোল থেকে শুরু হয়ে দশমীতে ভাসানের পর শ্রীরামপুরবাসী অপেক্ষা করে থাকে পরের বছর দোলের জন্য।

- Advertisment -

জনপ্রিয়

Flixbug এর পক্ষ থেকে মহৎ উদ্যোগ! জানালেন দেব চক্রবর্তী…

চারিদিকের পরিস্থিতি বেশ উদ্বেগ জনক। করোনা অতিমারীর ভয় গ্রাস করেছে মানুষকে। এই ভয়াবহ পরিস্থিতির শিকার সর্ব স্তরের মানুষ। এই ভয়াবহ পরিস্থিতিতে মানুষের পাশে দাঁড়াতে দেখা...

এ.কে.Ray তৈরীর পেছনেও রয়েছে কিছু কাহিনী! জানালেন অরূপ, সুপ্রতীম…

সম্প্রতি ABO Ptrika কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে অরূপ জানান তার প্রথম শর্ট ফিল্ম এ.কে.Ray খুব শীঘ্রই ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল এবং OTT প্লার্টফর্ম এ মুক্তি পেতে চলেছে।...

কাকদ্বীপে অসহায় মানুষদের হাতে ত্রান তুলে দিলেন “বং গাই”(কিরণ দত্ত)…

মানুষের মনোরঞ্জনের মাধ্যম সিরিয়াল, সিনেমার পাশাপাশি ইউটিউবও বিনোদনের অনেকখানি জায়গা দখল করে রেখেছে. এখন ইউটিউব চ্যানেল গুলোর রমরমা যথেষ্ট বেড়েছে.বাংলার তেমনই এক ইউটিউবার হলো...

সেফ হোম খোলার পর, যীশু সেনগুপ্তের উদ্যোগে ত্রান পৌছালো সুন্দরবনের মানুষের কাছে…

এই করোনা পরিস্তিতিতে অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়িয়েছেন অনেক তারকাই. তার মধ্যে অভিনেতা যীশু সেনগুপ্ত একজন. করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য আগেই উদ্যোগ নিয়েছেন যীশু. এবার...