Home জেলার খবর স্বাথ্য কর্মীদের অবহেলায় শিশু মৃত্যু হুগলীতে। নিন্দার ঝড় সোশাল মিডিয়ায়

স্বাথ্য কর্মীদের অবহেলায় শিশু মৃত্যু হুগলীতে। নিন্দার ঝড় সোশাল মিডিয়ায়

হুগলির মর্মান্তিক ঘটনার পর এবার আরেক ঘটনার সাক্ষী রইলো সাইয়া গ্রামের বাসিন্দারা।

গতকাল সকালে পোলবা থানা অন্তর্গত সইয়া গ্রামে ঘটে গেলো সেরকমই এক দুর্ভাগ্য জনক ঘটনা। পোলবা থানা অন্তর্গত সাইয়া গ্রামের এক বাসিন্দা তার বাচ্চা কে নিয়ে জান কেদারা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে পোলিও টিকা দেবার জন্য। কিন্তু সেখানে বাচ্চাটির দিকে না তাকিয়ে তার হাতে ইঞ্জেকশন দেওয়া হয় বলে অভিযান তুলেছেন শিশুটির পরিবার।
শিশুটির পরিবারের অভিযোগ যে কেদারা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের স্বাস্থ্য কর্মী এক মহিলা ওই দিন টিকা দিচ্ছিলেন। করোনার কারণে তারা শিশুটির দিকে না তাকিয়ে তার হাতে ইঞ্জেকশন দেয়। শিশুটির মা সেই সময় এই ঘটনার প্রতিবাদ জানলে তাকে বলা হয় “এখন এই অবস্থায় শিশুটির জীবনের থেকে তাদের(স্বাস্থ্য কর্মীদের) জীবনের দাম নাকি অনেক বেশি। তারা নাকি তাদের কাজ ঠিক মতোই করছে”। শিশুটি কাঁদলে তার মা বরফ দেবার কথা বললে তাকে বলা হয় “না বরফের প্রয়োজন নেই, আরো বলা হয় সে যদি আরো কথা বলে তাহলে তাকে সেই ঘর থেকে বের করে দেওয়া হবে”।

অতপর, শিশুটিকে বাড়ি নিয়ে আসলে তার হাতে কালসিটে দাগ পরে যায় এবং প্রচন্ড পরিমাণে তার জর আসে। রাতে মুখ দিয়ে রক্ত উঠে প্রাণ হারায় ফুলের মত ছোট্ট শিশুটি।

তার পরিবারের দাবি স্বাস্থ্য কর্মীদের এই কর্মকাণ্ডের কারণেই তার বাচ্চা অকালে প্রাণ হারিয়েছে। তারা এই স্বাস্থ্য কর্মীদের যোগ্য শাস্তি চেয়েছেন। তাদের দাবি এরকম যেনো না হয়, তাদের অবহেলার কারণে আর কোনো মায়ের কোল যেনো শূন্য না হয়।

- Advertisment -

জনপ্রিয়

সরস্বতী নাট্যোৎসবের দ্বিতীয় পর্যায় অনুষ্ঠিত হতে চলেছে উত্তর চব্বিশ পরগনার অশোকনগরে

করোনা প্রকোপ খানিক শান্ত হতে না হতেই এই শীতের মরসুমে নাট্যপিপাসু দর্শকদের কাছে সবচেয়ে আনন্দের বিষয় কলকাতা সহ পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন প্রান্তে অনুষ্ঠিত হওয়া নাট্যোৎসবে...

“পাই” এর উৎসবে মাতলো কলকাতা। ২০ থেকে ২৬ শে জানুয়ারি পর্যন্ত চললো সেলিব্রেশন

কলকাতায় গল্ফগ্রীনে পুরো সপ্তাহ ধরে চললো "পাইয়ের উৎসব"। "দ্য পাই হাউসের" পক্ষ থেকে আন্তর্জাতিক পাই ডে উপলক্ষে ২০ থেকে ২৬ শে জানুয়ারি সেলিব্রেট করা...

কলকাতা প্রেক্ষাপট এর নাট্য – পার্বণ

ভারতীয় সংকৃতির পীঠস্থান আমাদের এই বাংলা । নাট্যচর্চা বাংলার তথা ভারতীয় সংস্কৃতির এক অভূতপূর্ব ধারাকে বহন করে নিয়ে চলেছে প্রাচীনকাল থেকেই । বরাবরই বিভিন্ন...

সুযোগ পেলে আমিও স্বাস্থ্য সাথীর কার্ড করাবো” বললেন দিলীপ ঘোষ

মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নে এবার সামিল রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। স্বাস্থ্য সাথীর কার্ড করেছেন দিলীপ ঘোষ ও তার পরিবার এমনই দাবি করলেন বীরভূম...