Home দেশ কানে হেডফোন দিয়ে গান শোনেন? হতে পারে ভয়ঙ্কর পরিনতি...

কানে হেডফোন দিয়ে গান শোনেন? হতে পারে ভয়ঙ্কর পরিনতি…

কানে হেডফোন গুজে গান শোনেন? এই যুবকের পরিনতি শুনে সে সাহস আর হবে না আপনার

আমরা প্রায়ই কমবেশী কানে হেডফোন দিয়ে গান শুনি। কিন্তু তার পরিনতি কী হতে পারে সে বিষয়ে কী কোন ধারনা আছে আপনার?সম্প্রতি আমেরিকার একটি যুবককে প্রথিদিন কানে হেডফোন ও ইয়ারফোন দিয়ে গান শুনতেন। তার ভয়ঙ্কর পরিনতির কথা শুনে আপনি আর হেডফোন ব‍্যবহার করবেন না।

আন্তজার্তিক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত তথ‍্য অনুযায়ী, আমেরিকার জোক্স লুক্সেমবার্গ নামের এক ব‍্যক্তি তথ‍্যপ্রযুক্তি সংস্থার কর্মী ছিলেন। প্রথিদিন কর্মস্থলে যেতে তাকে সব মিলিয়ে ১ – ২ ঘন্টা বাস ট্রেনে থাকতে হত। একই ভাবেআসার সময়েও দুঘন্টা। আর থার যাতায়াথের পথে সঙ্গী ছিল ফোনে লোড করা গান। এরপর বাড়িতে এহেও ল‍্যাপটপে গান শুনতেন বা সিনেমাও দেখতেন। অর্থাৎ তার সবসময়েই সঙ্গী ছিল হেডফোন।

তিনি জানিয়েছেন, ছোটবেলায় ১৩ – ১৪ বছর বয়স থেকেই হেডফোনে গান শোনার অভ‍্যাস তার। বছর খানেক আগে কানে অল্প অল্প ব‍্যথা শুরু হয়। কিন্তু তা গুরুত্ব না দিয়ে আবার প্রতিদিন গান শোনতে থাকেন।

মাসখানেক আগে গভীর রাত্রে কানে মারাত্মক যন্ত্রনা শুরু হয় তার। যন্ত্রনায় ছটফট করতে থাকেন তিনি। কান থেকে আঠালো রস বেরিয়ে পড়তে থাকেন। এমন সময় প্রচন্ড যন্ত্রনাই হঠাৎ সংজ্ঞালোপ পায় তার।

বর্তমানে ক‍্যালিফোর্নিয়া ইনস্টিটিউট অফ অডিওলজিতে চিকিৎসাধীন আছেন। চিকিৎসক জানিয়েছেন, দীর্ঘক্ষন হাই ভলিউমের গান শোনার তার কানের পর্দা মারাত্মক ক্ষতি করে। তার কানের শ্রবনশক্তির মোট ৬০ শতাংশ চিরতরে হারিয়ে গেছে। পাশাপাশি তার ভারসাম্য ব‍্যবস্থাও তীব্রভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। কারন কান শরীরের ভারসাম্য রক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেয়।

- Advertisment -

জনপ্রিয়

লাল চোখে কুটিল হাসি “রাবণ” অবতারে ছবি পোস্ট করে চমকে দিলেন অভিনেতা জিৎ…

ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠেছে বিনোদন জগৎ। এই দুৃর্গাপুজোতে মুক্তি পেয়েছে জিৎ-এর দক্ষিণী ছবি ‘নান্নাকু প্রেমাথু’র অফিশিয়াল রিমেক ‘বাজি’। এই ছবিতে জিতের বিপরীতে অভিনয়...

মুক্তি পেলো Asheq Manzur প্রযোজিত এবং Arup Sengupta পরিচালিত মিউজিক ভিডিও “অনুভবে” টিজার…

3p প্রোডাকশনের পক্ষ থেকে এবং Arup Sengupta-র পরিচালনায় ২০ অক্টোবর মুক্তি পেতে চলেছে "অনুভবে" মিউজিক ভিডিওটি. সম্প্রতি মুক্তি পেলো "অনুভবে" মিউজিক ভিডিওটির টিজার. বাংলাদেশ...

মুক্তি পেলো DEZINIAX STUDIOS -এর প্রযোজনায় স্বল্প দৈর্ঘ্যের ছবি “হুলো & মেনি”…

বাঙালীর শ্রেষ্ঠ উৎসব দূর্গা পুজো. আর দূর্গা পুজোয় প্রেম হবে না তা কি হয়. এবার পুজোয় তবে "হুলো আর মেনির প্রেম হয়ে যাক? অবাক...

পুজোর মরশুমে ‘মনের মানুষ’ দেবতনু রাজ করতে চলেছে সকলের “হৃদ মাঝারে”!

বর্তমানে পরিস্তিতি উদ্বেগ জনক হলেও বাঙালীরা ৩৬৫ দিন অপেক্ষা করে থাকে এই ৪টি দিনের জন্য। উমা ঘরে আসার সাথে সাথে চারিদিক খুশির আমেজে ভরে...