Home জেলার খবর শ্রীরামপুরের বাসিন্দা ভবঘুরে চিন্টু পড়েনা মাস্ক,মানে না সতর্কতা, তার কাছে হার মানে...

শ্রীরামপুরের বাসিন্দা ভবঘুরে চিন্টু পড়েনা মাস্ক,মানে না সতর্কতা, তার কাছে হার মানে করোনাও…

ভবঘুরে চিন্টু পড়েনা মাস্ক,মানে না সতর্কতা, তার কাছে হার মানে করোনাও

ভবঘুরে চিন্টু, শ্রীরামপুরের বাসিন্দা। এক নামে সবাই চেনে, দীর্ঘদিন ধরে ঘুরে বেড়ায় রাস্তার এদিক সেদিক, কেউ ভাত দিলে খায়, নইলে চা, কখনো বিস্কুট, কখনো বা মুড়ি খেয়ে কাটিয়ে দেয় দিন।
বিশ্বজুড়ে করোনার দাপটে যখন সারা দেশ আতঙ্কিত, মাস্ক, স্যানিটাইজার ও নানারকম সতর্কতায় করোনার হাত থেকে বাঁচতে মরিয়া সেই সময় চিন্টুর মুখে নেই মাস্ক, সে ভয়ার্ত নয় কারণ তাঁর জীবনে মৃত্যুভয় নেই, সে তাই ভয় পায় না করোনাকে, করোনাও কিন্তু কাছে আসতে পারেনি তার। কারণ দীর্ঘদিন ধরে যার বসবাস রাস্তার ধারে, ফেলা দেওয়া খাওয়ার খেয়ে যার জীবন চলছে তার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অনেক বেশি আর পাঁচটা মানুষের তুলনায়।

কনকনে শীত হোক বা প্রখর গরম খালি খায়ে থাকে চিন্টু, কোমড়ে শুধু একটুকরো কাপড় জড়িয়ে।কোনওদিন কোনো খারাপ ব্যাধি স্পর্শ করতে পারেনি তাকে।
মাঝেমধ্যে তার দিদি রীতা চক্রবর্তী এসে তাকে খাইয়ে দেয়, স্নান করিয়ে দেয়, মা বাবা মারা যাওয়ার পর দিদিই তার একমাত্র কাছের মানুষ। ভগবানের আশির্বাদে এভাবেই দিব্যি বেঁচে আছে চিন্টু,কোনো ভয়, কোনো শঙ্কা ছাড়াই খোলা আকাশের নীচে রাস্তায় কাটিয়ে দিচ্ছে একটার পর একটা রাত ।

- Advertisment -

জনপ্রিয়

সরস্বতী নাট্যোৎসবের দ্বিতীয় পর্যায় অনুষ্ঠিত হতে চলেছে উত্তর চব্বিশ পরগনার অশোকনগরে

করোনা প্রকোপ খানিক শান্ত হতে না হতেই এই শীতের মরসুমে নাট্যপিপাসু দর্শকদের কাছে সবচেয়ে আনন্দের বিষয় কলকাতা সহ পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন প্রান্তে অনুষ্ঠিত হওয়া নাট্যোৎসবে...

“পাই” এর উৎসবে মাতলো কলকাতা। ২০ থেকে ২৬ শে জানুয়ারি পর্যন্ত চললো সেলিব্রেশন

কলকাতায় গল্ফগ্রীনে পুরো সপ্তাহ ধরে চললো "পাইয়ের উৎসব"। "দ্য পাই হাউসের" পক্ষ থেকে আন্তর্জাতিক পাই ডে উপলক্ষে ২০ থেকে ২৬ শে জানুয়ারি সেলিব্রেট করা...

কলকাতা প্রেক্ষাপট এর নাট্য – পার্বণ

ভারতীয় সংকৃতির পীঠস্থান আমাদের এই বাংলা । নাট্যচর্চা বাংলার তথা ভারতীয় সংস্কৃতির এক অভূতপূর্ব ধারাকে বহন করে নিয়ে চলেছে প্রাচীনকাল থেকেই । বরাবরই বিভিন্ন...

সুযোগ পেলে আমিও স্বাস্থ্য সাথীর কার্ড করাবো” বললেন দিলীপ ঘোষ

মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নে এবার সামিল রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। স্বাস্থ্য সাথীর কার্ড করেছেন দিলীপ ঘোষ ও তার পরিবার এমনই দাবি করলেন বীরভূম...