Home অজানা তথ্য "মৃত্যুর পরেও যার সৃষ্টি প্রাণ ফিরিয়েছিল এক মৃতপ্রায় শিশুর" অগাথা ক্রিস্টির

“মৃত্যুর পরেও যার সৃষ্টি প্রাণ ফিরিয়েছিল এক মৃতপ্রায় শিশুর” অগাথা ক্রিস্টির

কয়েকটি নয় ১০৩ টি ভাষায় যার বই অনুবাদ করা হয়েছিল এবং যার বই বিক্রির সংখ্যা বিশ্বে সর্বাধীক বিক্রীত,
তিনি হলেন জনপ্রিয় রহস্য উপন্যাসের লেখিকা ‘দ্যা কুইন অফ ক্রাইম’ অগাথা ক্রিস্টি।

ছোটবেলা স্কুলে নয় শিক্ষা গ্রহণ করেছিলেন মায়ের কাছে। ভাষা শিক্ষার সাথে পাশ্চাত্য সংগীতও শিখেছিলেন।

নিজের লেখা প্রথম বই ছাপার অক্ষরে দেখেন পাঁচ বছর পর।


বিশ্বসাহিত্যের দরবারে সর্বাধীক উচ্চতা লাভ করতে তাকে ধৈর্য ধরতে হয়৷ প্রথম বই ছ জনের বেশি প্রকাশক ফিরিয়ে দেয়, কিন্তু তার ধৈর্য তাকে সাফল্য এনে দেয়৷ প্রথম ৬ টি রোমান্টিক উপন্যাস লেখেন ‘ম্যারি ওয়েস্টকোট ‘ ছদ্মনামে। পরে নিজের নামেই লেখেন৷
৬৬ টি রহস্য উপন্যাসের পাশাপাশি ছোটদের জন্য ১৪ টি গল্প লেখেন তিনি। শুধু জীবিত থাকাকালীনই নয়, মৃত্যুর পরেও তিনি রহস্য উদঘাটন করেছিলেন।



হাসপাতালে একটি মৃতপ্রায় শিশুকে বাঁচিয়ে তুলেছিল তার সৃষ্টি। এক হাসপাতালে একটি শিশুকে সব রকম চিকিৎসা করেও বোঝা যাচ্ছিল না কি হয়েছে। ডাক্তারদের সাথে যেই নার্স শিশুটিকে দেখছিলেন সে অগাথা ক্রিস্টির ভক্ত ছিলেন। শিশুটির উপসর্গের সাথে ওই নার্স মিল পেয়েছিলেন অগাথা ক্রিস্টির চরিত্রের রোগের সাথে৷ তারপর ওই নার্স ডাক্তারদের অনুরোধ করে শিশুটির থ্যালয়ামের পরীক্ষা করার জন্য, তারপর দেখা যায় শিশুটির শরীরে থ্যালিয়ামের মাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি দশগুন৷ তারপর সেই মতো চিকিৎসা করায় শিশুটি মৃত্যুমুখ থেকে বেঁচে যায়।


ব্যাক্তিগত জীবনেও যে তিনি রহস্য সৃষ্টি করছেন তার একটি ঘটনা হল একসময় তিনি হঠাৎ নিখোঁজ হয়ে যান, অনেক সংস্থা তাকে হন্যে হয়ে খোঁজার পর তাকে ১১ দিন পর ইয়র্কশায়ারের এক হোটেল এ পাওয়া যায়। এই নিয়েও নানা বিতর্ক আছে, কেউ বলেন সাময়িক অ্যামনেসিয়া এর কারণ, আবার কারোর মতে ওই ঘটনা ছিল পাবলিসিটি স্টান্ট, আবার অনেকে বলেন সেই সময় তাকে নাকি এ্যালিয়েন নিয়ে গেছিল। যদিও এই ব্যাপারে লেখিকা কিছু বলেননি। ঘটনাটি রহস্যময়ই থেকে গেছে।

- Advertisment -

জনপ্রিয়

“ময়ূরপঙ্খীর” তরফ থেকে দিনমজুর ও রিক্সা চালকদের জন্য ঈদ উপলক্ষে কিছু উপহার প্রদান করা হলো

"ময়ূরপঙ্খী শিশু কিশোর সমাজ কল্যাণ সংস্থা" র পক্ষ থেকে এবং গ্লোবাল স্পা ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় ঢাকার মিরপুরের বিভিন্ন এলাকায় অসহায়, বয়স্ক, দিনমজুর ও রিক্সা চালকদের...

মায়ের মৃত্যুদিনে পথ পশুদের কল্যাণার্থে পারমিতা মুন্সী ভট্টাচার্য এর পরিচালনায় হয়ে গেলো ‘বর্ষ বরণে বিবিয়ানা’

পথপশুদের কল্যাণার্থে শিবানী মুন্সী প্রোডাকশনের 'বর্ষবরণে বিবিয়ানা' শীর্ষক বাংলা নববর্ষের ক্যালেন্ডার প্রকাশ হয়ে গেল। এই ক্যালেন্ডার থেকে সংগৃহীত অর্থ খরচ করা হবে পথ পশুদের...

কি করলে আপনাকে বা আপনার পরিবারকে ছুঁতে পারবেনা করোনা

বর্তমানের ভয়াবহ পরিস্থিতি থেকে নিস্তার পাওয়াটাই এখন সকল মানুষের একমাত্র লক্ষ্য. কিন্তু কিভাবে পাবো এই ভয়ানক কোবিড ১৯ এর হাত থেকে মুক্তি? কোবিড ১৯ ভাইরাস...

অতিমারির মধ্যেও প্রকৃতির আরো কাছে ফিরে যাচ্ছেন জয়া আহসান..

করোনা নামক ভয়ঙ্কর ভাইরাস বাংলাদেশেও ছড়িয়ে পড়েছে। সকলকে নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান। কিন্তু শুভেচ্ছা জানাতে গিয়ে তার কণ্ঠে বিষন্নতা রয়েছে। চারিদিকে...